হিমালয়ের তৃণভূমিগুলোতে রাতে থাকা নিষিদ্ধ করল উত্তরাখণ্ড হাইকোর্ট


[ছবি] শাসওয়াত নিমেশ | উইকিমিডিয়া কমন্স

জনস্বার্থে করা একটি মামলার রায় দিয়ে গত মঙ্গলবার উত্তরাখন্ড হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ রাজ্যের সব গুরুত্বপূর্ণ অতি উচ্চতার তৃণভূমি তথা বুগিয়ালগুলোতে রাতে থাকা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। সেই সাথে আগামী ছয় মাসের মধ্যে এই তৃণভূমিগুলোকে জাতীয় উদ্যান হিসেবে ঘোষণা করতে রাজ্য সরকারকে সুপারিশ করেছে হাইকোর্ট।

হিমালয়ের এই অঞ্চলের পরিবেশের উপর ভয়াবহ বিরুপ প্রভাব পড়ছে উল্লেখ করে হাইকোর্টের বেঞ্চ এই অঞ্চলগুলোতে রাতে থাকা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। সেই সাথে আগামী তিন মাসের মধ্যে তৃণভুমিগুলোতে বানানো সকল ধরনের স্থায়ী-অস্থায়ী স্থাপনা সরিয়ে ফেলতে রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ এই রায়ে বিচারকরা এই অঞ্চলগুলোতে পর্যটকদের সংখ্যাও নির্দিষ্ট করে দিনে ২০০ জনের মধ্যে সীমিত রাখার নির্দেশনা দেয়।

হাইকোর্টের এই সিদ্ধান্তের ফলে উত্তরখন্ডে ট্রেকিংয়ে যাওয়া পর্যটকদের উপর বিশেষ প্রভাব ফেলবে।  উত্তরাখন্ডের জনপ্রিয় ট্রেকগুলো যেমন কুয়ারি পাস, দায়ারা বুগিয়াল, রুপকুন্ডের মত ট্রেকগুলোতে যাবার জন্য এমন তৃণ অঞ্চলগুলোতেই রাতে ক্যাম্প করে থাকতে হত। এই সিদ্ধান্তের ফলে বুগিয়ালগুলোতে রাতে আর ক্যাম্প করে থাকা যাবে না, আবার স্থানীয়দের তৈরি ধাবাগুলোও উঠিয়ে দেওয়া হলে রাতে থাকার আর কোন জায়গাই থাকবে না। এই বুগিয়াল তথা তৃণভূমিগুলোতে রাতে থাকতে না পারলে ট্রেকাররা একদিনে এত লম্বা দূরত্ব অতিক্রম করে তাদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবেন না। তাই এই অঞ্চলগুলোতে পর্যটকদের আগমন আশংকাজনক হারে হ্রাস পাবে বলে সংশ্লিষ্টরা ধারণা করছেন।

তথ্যসূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া

(Visited 1 times, 1 visits today)

মন্তব্য করুন

*Please Be Cool About Captcha. It's Fun! :)