এভারেস্ট কি আদৌ সর্বোচ্চ চূড়া?

[ছবি: শাখাওয়াত হোসেন ইশতি]


কয়েকদিন আগে এক বড় ভাইয়ের সাথে কথা হচ্ছিল। আমাদের আড্ডাগুলিতে সাধারণত পাহাড়-পর্বতের প্রসঙ্গই বেশি থাকে। কথা প্রসঙ্গে ভাই বলে উঠল, ‘এই যে এভারেস্টকে যে আমরা সর্বোচ্চ পর্বত বলি, এটা কি পুরোপুরি ঠিক? এটা কিন্তু পুরোপুরি ঠিক না!’

আমি তো তাজ্জব! বলে কি! পাগল হয়ে গেল নাকি ভাই! এভারেস্ট যে সর্বোচ্চ পর্বত এ নিয়ে পাগল ছাড়া আবার কেউ সন্দেহ করতে পারে? এরপর ব্যাপারটার বিশদ বিশ্লেষণে চলে গেলেন তিনি। জ্ঞানী মানুষ। যা বলল, তার বেশিরভাগটাই আমার মাথার উপর দিয়ে গিয়েছিল সেদিন! কিছুই বুঝলাম না! খালি এটুকুই বুঝলাম যে এভারেস্ট নাকি সর্বোচ্চ পর্বত নয়!

মাথা সম্পূর্ণ ঘুরে যাওয়ার আগেই ব্যাপারটা নিয়ে তাই একটু পড়াশুনা করা প্রয়োজন মনে হল। পড়তে গিয়ে তো আমি তো হতবাক! এই পাহাড়-পর্বত আর কত ভেল্কি দেখাবে।কয়েকদিনের পড়াশুনায় আমি যা বুঝেছি সেটাই আপনাদের বলার চেষ্টা করব আজকে। কেউ যদি হুট করে এসে বলে, ‘মাউন্ট এভারেস্ট সর্বোচ্চ পর্বত নহে। তুমি ভুল জানো!’ তখন আসলে ঐ লোককে পাগলই মনে হয়। সেই বাচ্চাকাল থেকে জেনে আসছি, আর আজকে এসে এমন ভুল হয়ে যাবে এটা মেনে নিতে কষ্ট হবেই! সেই বাচ্চাকাল থেকে জেনে আসছি, আর আজকে এসে এমন ভুল হয়ে যাবে এটা মেনে নিতে কষ্ট হবেই! এই কষ্টটা যেন আজকের পর থেকে আর না হয় তাই লিখতে বসলাম।

সর্বোচ্চ পর্বত বলা হয় তাকেই যার উচ্চতা সবথেকে বেশি। এতে কারো কোন সন্দেহ নেই এবং এই ব্যাপারটি আমরা সবাই জানি। তাহলে সমস্যাটা কোথায়? এভারেস্ট সর্বোচ্চ কি না এই কথা কেন আসবে?

সমস্যাটা আসলে পর্বত শৃঙ্গে না, সমস্যাটা পর্বতগুলির উচ্চতা কোথা থেকে মাপা হচ্ছে সেখানে। একটি পর্বতকে আমরা সর্বোচ্চ বলতে পারব কি না এটি নির্ভর করে কোন জায়গা থেকে আমরা পর্বতটির উচ্চতা পরিমাপ শুরু করছি তার উপর।

এই ‘সর্বোচ্চ’ ব্যাপারটা পরিমাপ করা হয়ে থাকে সমুদ্র পৃষ্ঠের গড় উচ্চতা থেকে পর্বতটির সর্বোচ্চ বিন্দু বা সামিট পয়েন্ট পর্যন্ত দূরত্ব পর্যন্ত। সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে সর্বোচ্চ বিন্দুর দূরত্ব মেপে যদি আমরা হিসেবে আনি, তাহলে নিঃসন্দেহে এভারেস্ট সর্বোচ্চ চূড়া। নিচের ছবিতে ব্যাপারটা পরিষ্কার করার চেষ্টা করছি,

এখন যদি আলালের ভাই দুলালের ইচ্ছা হয় সে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে উচ্চতা না মেপে পর্বতটির পাদদেশ থেকে তার উচ্চতা মাপবে? তাহলেও কি এভারেস্টের উচ্চতা একইরকম থাকবে? এভারেস্ট কি তখনও বিজয়ীর বেশে মাথা উঁচু করেই দাঁড়িয়ে থাকবে?

এখানেই ঝামেলাটি বেধে যায়!

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে এভারেস্টের সর্বোচ্চ বিন্দুর দূরত্ব ৮৮৫০মিটার। এই হিসেবে পৃথিবীর আর কোন পর্বত এতটা উঁচু নয়। কিন্তু যদি পর্বতটির পাদদেশ সমুদ্রপৃষ্ঠের নীচে থাকে আর সেখান থেকে যদি কেউ পরিমাপ করতে চায় তার সর্বোচ্চ বিন্দুর দূরত্ব? তখন কিন্তু এভারেস্টের গৌরবটুকু আর থাকে না! তখন সর্বোচ্চ বিন্দুর মুকুট মাথায় ওঠে মউনাকিয়া নামের একটি পর্বতের!

মউনাকিয়া হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের একটি সুপ্ত আগ্নেয় পর্বত। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে যার উচ্চতা মাত্র ৪২০৫মিটার।এভারেস্ট তো একে হেসে উড়িয়ে দিবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সমুদ্রের নিচ থেকে যদি কেউ পরিমাপ করতে চায় মউনাকিয়ার সর্বমোট উচ্চতা, তখন হয়তো মাউন্ট এভারেস্ট মুখ লুকোবার জায়গা পাবেনা! সমুদ্র তলদেশ বা পর্বতটির পাদদেশ হতে মউনাকিয়ার চূড়া বা সামিটের দূরত্ব দশ হাজার মিটারেরও বেশি! এভারেস্টের থেকেও প্রায় ২০০০মিটারের বেশি! আর এই মানটিই মউনা কিয়ার শিখরে সর্বোচ্চ পর্বতের মুকুট তুলে দিয়েছে অন্যভাবে! কারণ ঐ যে বললাম পর্বতটির পাদদেশ সমুদ্র তলদেশ হতেই শুরু।

এর স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য এবং চূড়ায় সুবিধাজনক জায়গা এবং পরিস্থিতি থাকার কারণে পৃথিবীর বৃহত্তম মান মন্দিরটিও এই চূড়ায় অবস্থিত। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১৪০০০ ফিটের কাছাকাছি উচ্চতায় হওয়ায় পর্বতটির উপরে বায়ুমন্ডল প্রচন্ড শুষ্ক এবং মেঘ মুক্ত থাকে। যে কারণে এই জায়গাটি যে কোন মান মন্দিরের জন্য একটি আদর্শ জায়গা!

এখন আরেকটি জিলাপির প্যাচ লাগানো যাক! দুলাল তো মেপেছে সমুদ্রের নিচে গিয়ে মউনা কিয়া পর্বত যেখান থেকে শুরু হয়েছে সেখান থেকে। কিন্তু আলাল এবার বেঁকে বসল! আলাল বলল, ‘না, আমি পৃথিবীর কেন্দ্র হইতে সকল পাহাড়-পর্বতের উচ্চতা পরিমাপ করিতে চাই!’

এখন কি হবে? এভারেস্ট না মউনা কিয়া? কোনটা সর্বোচ্চ পর্বত হবে এবার?

এবার কিন্তু এই দুইটির কোনটিই সর্বোচ্চ পর্বত হতে পারবে না! যখনই আলাল পৃথিবীর কেন্দ্রে চলে গেছে উচ্চতা মাপার জন্য, ফলাফলও সম্পূর্ণ বদলে গিয়েছে! আর এই প্যাঁচের  কারণটি হল পৃথিবীর আকৃতি। ছোটবেলায় সাধারণ জ্ঞানের বইতে পড়েছিলাম ‘পৃথিবী পুরোপুরি গোল নহে, অনেকটা কমলালেবুর মত। উত্তর দক্ষিণে সামান্য চ্যাপ্টা।’

এই আকৃতিটাই এভারেস্ট বা মউনা কিয়ার জন্যে কাল হয়ে দাঁড়াল! (আবারও প্যাঁচ! কি দরকার ছিল পৃথিবীর কমলা লেবুর মত হওয়ার! গোল হতে কে মানা করেছিল!)

যাই হোক, পৃথিবীর আকৃতি গোল না হয়ে কমলা লেবুর মত হওয়ায় যেটা হয় তা হল পৃথিবীর কেন্দ্র থেকে বিষুবীয় অঞ্চল সমূহের দূরত্ব সব থেকে বেশি হয় এবং কেন্দ্র থেকে মেরু অঞ্চলের দূরত্ব সব থেকে কম হয়ে দাঁড়ায়। তার মানে বিষুব অঞ্চলসমূহে যে সমস্ত পর্বত রয়েছে তাদের মধ্যে বিষুব রেখা বা নিরক্ষ রেখার কাছাকাছি অবস্থান করা পর্বতগুলির উচ্চতা পৃথিবীর কেন্দ্র থেকে সবচেয়ে বেশি হবে।



চিম্বোরাজো পর্বত


তাহলে এই মানদন্ডে কোন পর্বতটি সর্বোচ্চ? এই মান দন্ডের বিচারে পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতটি হল ইকুয়েডরে অবস্থিত চিম্বোরাজো পর্বত।বিষূবরেখা হতে এই পর্বতটি মাত্র এক ডিগ্রি দক্ষিণে অবস্থিত হওয়ায় পৃথিবীর কেন্দ্র হতে এটিই সর্বোচ্চ বিন্দু। অথচ সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে এর উচ্চতা মাত্র ৬২৬৩ মিটার! (বেচারা এভারেস্ট! সর্বোচ্চ পর্বতের খেতাবটি কিভাবে বারবার ধূলিসাৎ হয়ে যাচ্ছে!)

যাই হোক, ‘সর্বোচ্চ’ ব্যাপারটি সবসময় কোন না কোন প্রসঙ্গ বস্তুর সাপেক্ষেই নির্ণয় করা হয়। কোন কিছু পরিমাপ করতে হলেই দরকার পড়ে এই প্রসঙ্গ বস্তু বা রেফারেন্স অবজেক্টের। পর্বতের বেলায় সেটি কখনও হয় সমুদ্রপৃষ্ঠ, কখনও সমুদ্রতলে পর্বতটির পাদদেশ কিংবা হতে পারে সেটি পৃথিবীর কেন্দ্র। যেহেতু আমরা কখনই পৃথিবীর কেন্দ্র বা সমুদ্র তলদেশ হতে পর্বতারোহণ শুরু করি না (কারও ইচ্ছে হলে চেষ্টা করে দেখতে পারেন!), তাই সব সময়ের মত সর্বোচ্চ বিন্দুর মুকুটটি না হয় মহা মহিম মাউন্ট এভারেস্টের মাথাতেই থাক। আজীবন সে তার বিশালতা দিয়ে এক দুর্নিবার আকর্ষণে আকর্ষিত করে যাক মানব সম্প্রদায়কে। শত বিপদের ভয়, মৃত্যুর হাতছানি উপেক্ষা করে যারা সবসময় পদচিহ্ন রেখে চলেছে সবখানে।


 

(Visited 1 times, 1 visits today)
তানভীর রিশাত
তানভীর রিশাত
মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিষয় নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করছেন। ইচ্ছামত ঘুরে বেড়ানো, বই পড়া, পাহাড়ে যাওয়া তার শখ। স্বপ্ন সারা পৃথিবী ঘুরে ঘুরে দেখার।

One thought on “এভারেস্ট কি আদৌ সর্বোচ্চ চূড়া?

মন্তব্য করুন

*Please Be Cool About Captcha. It's Fun! :)